পেঁয়াজের উপকারী গুণ

দৈনন্দিন রান্নায় পেঁয়াজ একটি গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ। পেঁয়াজ ছাড়া তরকারি রান্নার কথা ভাবাই যায়না। এতে রয়েছে অসাধারণ পুষ্টিগুণ। এতে প্রচুর পরিমাণে কোয়ারসেটিন আছে যা রক্তের খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমায়। পাশাপাশি ভালো কোলেস্টেরল বাড়ায়, রক্ত জমাট বাঁধা রোধ করে, হাঁপানি সমস্যা কমায় ও ডায়াবেটিসকে নিয়ন্ত্রণে রাখে।
তাই এবারে পেঁয়াজের ব্যতিক্রমী কিছু গুণের কথা জানিয়ে দিচ্ছে অর্থসূচক:
এক. মশা বা কীটপতঙ্গের কামড় থেকে রক্ষা করে:
মশার উৎপাত বা কীটপতঙ্গের উপদ্রব থেকে রক্ষা পেতে পেঁয়াজের রসের কোনো বিকল্প নেই। শরীরের অনাবৃত অংশে মাভিয়ে নিয়ে দেখা যাবে মশা বা কীটপতঙ্গ আর কামড়াবে না।
দুই. ব্যথা দূর করে:
অনেক সময় ব্যথা দূর করতে একটু পেঁয়াজ আক্রান্ত স্থানে ঘষে দিলেই ব্যথা কমে যাবে।
তিন. গলা ব্যথায়:
গলা ব্যথা হলে একটু গরম পানিতে পেঁয়াজের রস দিয়ে অল্প করে পান করুন, এতে ব্যথা সেরে যাবে।
চার. পোড়া ব্যথায়:
শরীরের পোড়া স্থানে পেঁয়াজের রস লাগালে ব্যথা থাকবে না। জ্বালাও কমে যাবে।
পাঁচ. ব্রণ দূর করতে:
ব্রণে পেঁয়াজের রস মেখে দিলে ব্রণ চলে যাবে।
ছয়. চুল পড়া কমাতে:
চুল পড়া কমাতে পেঁয়াজের রসের বিকল্প নেই। পেঁয়াজের রস চুলের গোড়াকে শক্ত করে।
সাত. এন্টিব্যাকটোরিয়াল:
পেঁয়াজে রয়েছে এন্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান। তাই ফোড়া বা ঘা পেঁয়াজ দিয়ে ধুলে তাড়াতাড়ি সেরে যায়।
আট. হেঁচকি দূর করতে:
কোনোমতেই হেঁচকি বন্ধ না হলে, পেঁয়াজের রস পানিতে মিশিয়ে পান করুন। হেঁচকি বন্ধ হয়ে যাবে।
নয়. বমি বন্ধ করতে:
বমি বন্ধ করতে কয়েকফোটা পেঁয়াজের রস পানিতে মিশিয়ে পান করলে তা বন্ধ হয়ে যাবে।
দশ. ধাতুর দাগ দূর করতে:
সাধারণত চামচ, দা, ছুরি বা যেকোনো ধাতব সামগ্রীতে দাগ বসে যায়। এক্ষেত্রে পেঁয়াজ কেটে দিয়ে ঘষলে এই কঠিন দাগও উঠে যায়।
এরকম আরও নিউজ পেতে ভিজিট করতে পারেনঃ http://www.arthosuchak.com/life-style/

0 comments :

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন